শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ০৪:৫১ পূর্বাহ্ন

টংগিবাড়ীতে মুজিববর্ষর প্রকল্প নিষ্ঠার সাথে বাস্তবায়িত হয়েছে ।

লেখক
  • প্রকাশিত মঙ্গলবার, ১৩ জুলাই, ২০২১
  • ৪৪৬ দেখা হয়েছে

‘‘আসমানীরে দেখতে যদি তোমরা সবে চাও
রহিমুদ্দীর ছোট্ট বাড়ি রসুলপরে যাও’’

স্টাফ রির্পোটার ।। পল্লী কবি  জসীমউদ্দীনের এই কবিতার সাথে আমরা সবাই পরিচিত। আমাদের সমাজের চারপাশে আসমানীদের প্রতিনিধিরা খুপড়ি ঘরে, অন্যের আশ্রয়ে কিংবা ছোট্ট একরুমে ভাড়া করে দিনযাপন করছেন। মানবতার মা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই সকল গৃহহীন নিরাশ্রয় মানুষের দুঃখ কষ্টের কথা উপলব্ধি করেছেন। তিনি ঘোষণা করেছেন ‘‘মুজিববর্ষে একটি মানুষও গৃহহীন থাকবে না’’।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর মহতী এই স্বপ্ন বাস্তবায়নে সারাদেশে এক লক্ষ আঠারো হাজার গৃহনির্মাণ করা হয়েছে এবং উপকারভোগীদের বিতরণ করা হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় টংগিবাড়ী উপজেলায় ২০টি ঘর বরাদ্দ পাওয়া যায়। তন্মধ্যে ১২টি ঘর আব্দুল্লাপুরে নির্মিত হয়েছে। সেখানে আসমানীর প্রতিনিধি খোরশেদা, মোসলেম, হেলেনা, সিরাজ দপ্তরী, আদিনাথ প্রমুখ বসবাস করছে। তাদের ঘরে গিয়ে দেখা যায় স্বল্প আসবাব দিয়ে সুন্দর করে গোছানো পরিপাটি ঘর। ঘরের সামনের আঙ্গিনায় রয়েছে পুঁইশাক, ঢেড়স, ডাটাসহ বিভিন্ন সবজি। শিশুদের কলকাকলিতে মুখরিত দুকক্ষ বিশিষ্ট সেমি পাকা ঘর। সে ঘরের কিচেনে রান্না চড়িয়েছেন উপকারভোগী হেলেনা, খোরশেদা।

ঘরের কাঠ, ঘরের টিন, প্রতিটি আইটেম মজবুত। অত্যন্ত সুদৃশ্য এই ঘরগুলোতে অসহায় ভূমিহীন মানুষগুলো নিজেদের সংসার সাজিয়েছেন ভালবাসার ছোঁয়া দিয়ে।
সরজমিনে উপজেলার কামারখাড়া ইউনিয়নের নশংকরে গিয়ে দেখা যায় বাকি ৮টি ঘরের কাজ চলমান। সেখানে বিদ্যুৎ সংযোগ, নলকূপ স্থাপন করা হয়েছে। জমি নির্বাচন, উপকারভোগী বাছাই, ঘরের কাজের বিভিন্ন ধাপের কাজ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি নিষ্ঠা ও সর্বাধিক গুরুত্বের সাথে সম্পন্ন করেছে।

নিরাশ্রয় মানুষগুলোর মুখের হাসিই বলে দেয় মুজিববর্ষ উপলক্ষে নির্মিত এই আশ্রয়ন প্রকল্পের স্বার্থকতা। উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি নিষ্ঠার সাথে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন বাস্তবায়ন করেছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো খবর
© স্বর্বস্বত্ব সংরক্ষিত হেডলাইন বাংলাদেশ
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesba-lates1749691102